রবিবার, ৭ জুন ২০২০, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ 
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / অন্যান্য / অনলাইনেই পাকিস্তানি তরুণকে বিয়ে করলেন জয়পুরহাটের সাবরিনা

অনলাইনেই পাকিস্তানি তরুণকে বিয়ে করলেন জয়পুরহাটের সাবরিনা

করোনার কারণে পাক্স্তিানের প্রেমিককে অনলাইনে বিয়ে করেছেন জয়পুরহাটের মুরসালিনা সাবরিনা। ব্যাংক কর্মকর্তা মোজাফ্ফর রহমানের মেয়ে সাবরিনা আমেরিকান অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয় ‘ইউনিভার্সিটি অফ দ্য পিপল’-এ ২০১৮ সাল থেকে পড়ছেন। সেই সূত্রেই অনলাইনে পাঞ্জাব প্রদেশের মুলতানের ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ উমেরের সঙ্গে প্রেম হয়। পারিবারিকভাবে এই মার্চ মাসে বিয়ের সিদ্ধান্ত হলেও বাধা হয়ে আসে করোনা।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) বিকাল ৫টায় জয়পুরহাট পৌর শহরের কাশিয়াবাড়ি এলাকার কনের বাড়িতে অনলাইনে বিয়ে পড়ানো হয়। অনলাইনে বিয়ে পড়ান মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান। এ সময় অনলাইনে সাবরিনার কবুল পড়া শোনানো হয় বর উমের এবং তার বাবা বিলাল আহম্মেদকে। একইভাবে অনলাইনে ইঞ্জিনিয়ার উমের তার প্রেমিকা সাবরিনাকে স্ত্রী হিসেবে কবুল করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টদের নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ২০১৯ সালের দিকে পরিচয় হয় সাবরিনা ও উমেরের। প্রেমের সম্পর্ক জানাজানি হলে উভয়র পরিবার তাদের বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক উমের এবং তার পরিবার বাংলাদেশে আসার জন্য ২০২০ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি ভিসার জন্য আবেদন করেন। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জয়পুরহাটে সাবরিনা এবং তার পরিবারের খোঁজ-খবর নেয় স্থানীয় গোয়েন্দা সংস্থা। ভিসা নিয়ে মার্চ মাসেই উমেরের পরিবার বাংলাদেশে এসে বিয়ে সম্পন্ন করার কথা ছিল। তবে করোনার কারণে বিয়ে আটকে গিয়েছিল। পাকিস্তানের বাহরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামাবাদ ক্যাম্পাস থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেছেন উমের। তার বাবা বিলাল আহম্মেদ একজন ব্যবসায়ী।

সাবরিনার বাবা মোজাফ্ফর রহমান বলেন, ‘মেয়ের সঙ্গে পাকিস্তানি ছেলের প্রেমের সম্পর্ক প্রথমে মেনে নিতে চাইনি। কিন্তু পরে তাদের খোঁজ-খবর নিয়ে ভালো লেগেছে। তাদের পরিবার খুবই ভালো। তাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই বিয়ে সম্পন্ন করেছি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই জামাই ও তার পরিবার এসে আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়েকে নিয়ে যাবেন।’

error: Content is protected !!