বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬ 
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / জাতীয় / প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার নাম করে ভাতিজিকে ধর্ষণ করলো ফুফা

প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার নাম করে ভাতিজিকে ধর্ষণ করলো ফুফা

নিউজ ডেস্ক :

ধামরাইয়ে প্রেমিকের সঙ্গে বয়িে দেওয়ার নাম করে বাড়িতে ডেকে এনে ভাতিজিকে ধর্ষন করেছে আপন ফুপা। রবিবার (২৫ আগস্ট) রাতে এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে ধামরাই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন

অভিযুক্ত ফুপার নাম আলমগীর (৫০)। সে একটি প্রাইভেটকাররে ড্রাইভার। ভুক্তভোগী ধর্ষিতা সুয়াপুর ইউনিয়নের সুয়াপুর গ্রামরে বাসন্দিা। অভিযুক্ত আলমগীর একই ইউনিয়নের ঘোড়াকান্দার হায়দার আলীর ছলে।
ভুক্তভোগী বলনে, গত বুধবার (২১ আগষ্ট) প্রমেকি নাহদিরে সঙ্গে বয়িে দওেয়ার নাম করে ফুপা আলমগীর তাকে নজিরে বাড়তিে ডকেে নয়ে। পরে নাহদিরে বাড়ি যাবার কথা বলে বাইরে যতেে চাইলেও ঘরে দরজা বন্ধ করে জোর করে র্ধষণ করে আমাক।

অভযিোগকারীর খালা রাবয়ো বগেম বলনে, ঘটনার পর আলমগীর ভুক্তভোগীকে বাড়িতে পৌঁছে দয়ে। দু’দনি পর সে এই ঘটনা তার মাকে জানায়।

ভুক্তভোগীর মা বলনে, এই ঘটনা শোনার পর আমরা চয়োরম্যান, মম্বোরকে জানাই। তারা মিমাংসার কথা বলেন। আলমগীরকে আটক করা হলেও সুয়াপুর ইউনয়িনরে মম্বোর প্রভাত মালো তাকে ছড়েে দয়ে।

এ বষিয়ে জানতে চাইলে অভযিুক্ত মম্বোর প্রভাত মালো বলনে, ঘটনাটা জানি দু’জনকইে আমি চিনি আমরা মমিাংসার কথা বলেছিলাম। তবে তারা চলে যায়। পরে আলমগীরও নজিরে বাসায় চলে যায়।

সুয়াপুর ইউনয়িনরে চেয়ারম্যান হাফজিুর রহমান সোরহাব বলনে, ঘটনাটা কয়কেদনি আগে ঘটে পরে আমার কাছে অভযিোগ জানায়। আত্মীয় স্বজনরে মধ্যে ঘটনা বলে আমরা মিমাংসার কথা বলি তবে তারা কোন মীমাংসায় যায়নি। আলমগীরকে পুলশিে সোর্পদ না করার বিষয়ে তিনি বলেন, এটা আমাদরে এখতিয়ার না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ধামরাই থানার অফসিার ইনর্চাজ ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ভুক্তভোগী ও তার মা থানায় এসে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

error: Content is protected !!