শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬ 
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / সাতক্ষীরা / ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে একযোগে কাজ করার আহবান -জেলা প্রশাসক

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে একযোগে কাজ করার আহবান -জেলা প্রশাসক

ইব্রাহিম খলিল

সাতক্ষীরায় আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে । জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে উক্ত সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সভায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী ছাদেকুর রহমান, সিভিল সার্জন ডাঃ আবু শাহিন, ৩৩ বিজিবির উপ-অধিনায়ক মেজর সৈয়দ ফজলে হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এন.এস.আই)’র উপ-পরিচালক জাকির হোসেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা জ্যোৎস্না আরাসহ আইনশৃখংলা কমিটির সদস্যবৃন্দ। এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা সন্ত্রাসিরা ৭বার মারা চেষ্ট করে ব্যর্থ হয়ে ৮ম বারের মাথায় গুলি করে হত্যা করেছে। ১৩/১৪ সালের নাশকতা মামলায় আসামিরা এখন জামিনে আবার সন্ত্রাসি কার্যক্রম করছে। যারা সন্ত্রাসি কর্মকান্ড করে বাংলাদেশকে অকার্যকর রাষ্ট্র বানাতে চায় তারা জেলখানায় বা গভীর জঙ্গলে থাকবে।

পুলিশ সুপার বলেন, আমি সম্মানের জন্য চাকরি করি, অবৈধভাবে টাকা পয়সা বা অন্য কোন কিছু করার জন্য চাকরি করিনা। তিনি বলেন রাজনীতি আর ব্যক্তি জীবন আলাদা করতে হবে। খুবদ্রুত মামলার অগ্রগতি দেখতে পাবেন। প্রকৃতি ঘটনা আমি মিডিয়া বা জনসম্মুখে প্রচার করব। প্রকৃত ঘটনার আড়ালে নিরহ মানুষকে হয়রানি করা হবে না। আমি যতদিন সাতক্ষীরাতে থাকর ততদিন পুলিশের কর্মকান্ড নিয়ে কোন কিছুতে লুকোচুরি হবে না।

জেলা প্রশাসক বলেন, ক্যবিনেটর সিন্ধান্ত অনুযায়ি আগামি ১৫ আগষ্টের কর্মসুচিতে সকল কর্মকতাকে উপস্থিত থাকতে হবে। এছাড়া সাতক্ষীরাতে ১৩/১৪ সালের নশকতাসহ সন্ত্রাসি কর্মকান্ডের যে সব আসামি জামিনে বাইরে এসে কাদের সাথে চলাফেরা করছে, কাদের ছত্রছায়ায সন্ত্রাসি কর্মকান্ড পরিচালনা করে তা আইশৃঙ্খলা বাহিনিদ্বারা পর্যবেক্ষণ করা হবে। সাতক্ষীরাবাসি তাদের জঙ্গি, সন্ত্রাস, নশকতাসহ কোন ধরনের অপরাধ সহ্য করবে না। আর যাদের মদদে করবে তাদেরকেও জনগনের সামনে আনাহবে। এসব কর্মকান্ডে যারা জড়িত তাদের কোন রাজনৈতিক পরিচায় নেই। অপরাধি যে বা যে দলের হোক সে অপরাধি। আইন শৃঙ্খলা বাহিনি ছাড়া কোন সংগঠনকে সরকার একাকি সন্ত্রাসির আকড়া গুড়িয়ে দিতে বলেনি। যে সকল যুবক এ ঘটনার সাথে জড়িত বা কেন সেখানে গিয়েছে কি তাদের উদ্দেশ্য প্রকৃত ঘটনা উদঘটন করার জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনিকে নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক। সন্ত্রাসি যতবড় শক্তিশালি আর যে দলের হোক তাদেরকে সাতক্ষীরা মাটি উত্তপ্ত করে পাখামেলা উড়তে দেওয়া হবে না। তাদের পাখা ভেঙ্গে ফেলা হবে।

আসুন আমরা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে ১১টা এক ঘন্টা নিজেরা আমাদের বাসা বাড়ি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস আদালত, হাট বাজার, রাস্তা ঘাট, বাসস্টেশন, হোটেল রেঁস্তোরা, খেলার মাঠ, ছাদবাগান, পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করি। ডেঙ্গ প্রতিরোধে নিজে সচেতন হই অন্যকে সচেতন করি। তিনি বলেন ফুলের টব, নারিকেলের খোলা, ফ্রিজের পানি, এসির জমা পানি এ সব পরিস্কার পানিতে এডিস মশার জন্ম হয়। একই সাথে জেলা প্রশাসক কুরবানিকৃত পশুর উচ্ছিষ্টাংশ পরিবেশসম্মতভাবে অপসারণে করণীয় সম্পর্কেও সকলকে সর্তক ও সচেতন হওয়ার কথা বলেন।

error: Content is protected !!