সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭ 
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / সাতক্ষীরা / কলারোয়া / কলারোয়ায় ধ্বংস প্রায় কোটি টাকার পানির প্রকল্প

কলারোয়ায় ধ্বংস প্রায় কোটি টাকার পানির প্রকল্প

শফিকুর রহমান : কলারোয়ারগোয়ালচাতরবাজারের পানি আর্সেনিক মুক্ত করনপ্রকল্পটি প্রায় আট মাস যাবত অকার্যকর রয়েছে। কেয়ারটেকারদের চরম অবহেলা আর দেখভালের অভাবে এই মূল্যবান সম্পদ এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে।পাঁচনং কেঁড়াগাছি ইউনিয়নের গোয়ালচাতর মতিগঞ্জ বাজারে ২০১৩ সালে ঢাকা আহসানিয়া মিশনের উদ্যোগে, প্রায় কোটি টাকা ব্যয়নির্মিত হয় এই বিশাল আর্সেনিক মুক্ত করণ প্রকল্প।

নির্মাণের পর থেকে স্থানীয় মাহবুব হোসেন,(৪০) পিতা এনায়েতুল্লাহ সরদার।এবং স্থানীয় প্রাক্তন ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম (৪০)এই প্রকল্পটির সার্বিক দেখভালের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।এবং সেখান থেকে প্রাপ্ত বিপুল পরিমাণ অর্থ নিজেরা হাতিয়ে নেন।এরপরও পাঁচনং কেঁড়াগাছি ইউনিয়নের মানুষএকটা নিরাপদ পানির ঠিকানা খুঁজে পেয়েছিল গোয়ালচাতর বাজারের এই প্রকল্পটির মধ্যে। এভাবে চলতে থাকে বেশ কিছুদিন।

গত ২৮|০৬|২০১৮তারিখে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,গত ৮ মাস আগেপ্রকল্পটির একটি গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ অকার্যকর হয়ে যায়,তারপর থেকে কেয়ারটেকার মাহবুব ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শফিকুল এই বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষকে কোনরূপ অবহিত না করে প্রকল্পটি নিজেদের ইচ্ছামত বন্ধ করে দেন।

বর্তমানে এই মূল্যবান প্রকল্পটিরঅবস্থা অত্যন্ত নাজুক।লোহার মহা মূল্যবান যন্ত্রাংশ গুলোতেমরিচা ধরে এখন ধ্বংসপ্রায়। এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, যখন প্রকল্পটি চালু ছিল। তখন মাহবুব ও সফিকুল খুব ক্ষমতা দেখিয়েছে।বেশি দামে আমাদের কাছে পানি বিক্রি করেছে।আর যখন এটি নষ্ট হয়ে গেছেতারাআর মেরামতের উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।

এ ব্যাপারে কলারোয়া জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল এর সহকারী প্রকৌশলী মোঃ সারোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমাদের জানানো হয়নি! তবে আপনি (সাংবাদিক) এসেছেন আমি খুব খুশি হয়েছি।বিষয়টি নিয়ে উদ্যোগ গ্রহণকরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এবং আমি প্রকল্পটিরযেন পুনরায় চালু হয় সেজন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।এবং তিনি তাৎক্ষণিকভাবেপ্রকল্পটির মূল স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা আহসানিয়া মিশনেরএকউর্দ্ধতন কর্মকর্তা জনাব বিপ্লবকে বিষয়টি অবহিত করেন এবং বিষয়টি জেনেঢাকা আহসানিয়া মিশন এর ওই উর্দ্ধতন কর্মকর্তা বলেনপ্রকল্পটি অকার্যকর হয়েছে বিষয়টি আমাদের জানানো হয়নি। এখন জেনেছি যত দ্রুত সম্ভব সমাধানের চেষ্টা করব।

এ ব্যাপারে এই প্রকল্পের কেয়ারটেকার স্থানীয় মাহবুব হোসেন (৪০) ও প্রাক্তন ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন ,আমাদের ভুল হয়েছে। আমরা এখন কি করবো বুঝতে পারছিনা।

অত্র ইউনিয়নের একমাত্র বিশুদ্ধ পানির প্রকল্পটি পুনরায় চালু করতে এলাকার সর্বস্তরের জনগণ আপ্রাণ দাবি জানিয়েছেন এবং কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

error: Content is protected !!